Skip to content

১ ও ২ টাকার কয়েনে থাকা বুড়ো আঙুলের ছাপের পেছনে রহস্য কী? জেনে নিন

আমাদের দেশে মুদ্রার অধীনে চলমান নোট এবং কয়েনের বিভিন্ন আকার রয়েছে, যা বেশিরভাগ মানুষই জানেন না। আমাদের দেশে এক বা দুই টাকার কয়েনে বুড়ো আঙুল বা আঙুলের ছাপ রাখা হয়েছে, কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে ওই আঙুলের ছাপ কেন রাখা হয়েছে এবং এর পেছনের রহস্য কী? ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ ডিজাইনের অধ্যাপক অনিল সিংহ, ভারতীয় এক বা দুই টাকার কয়েনে বুড়ো আঙুলের ছাপ দেওয়ার কাজ করেছেন।

Coin

এই বুড়ো আঙুলের ছাপ আসলে নকশা নয়, এর একটি বিশেষ অর্থ রয়েছে। আসুন জেনে নেওয়া সম্পূর্ণ বিষয়টি সম্পর্কে। কয়েনগুলিতে যে বুড়ো আঙুলের ছাপ দেখতে পান, এগুলি হল ভরতনাট্যম নৃত্যের ভঙ্গি এবং এই ভরতনাট্যম নৃত্যের ভঙ্গিগুলি এক এবং দুই টাকার মুদ্রা সম্পর্কে বলে৷ একে আমরা হাতের অঙ্গভঙ্গিও বলতে পারি, যা আমাদের ইশারায় বলে দেয় এই মুদ্রার মূল্য কত।

Coin

২০০৭ সালে বুড়ো আঙুলের ছাপ দেওয়া কয়েন চালু হয়। এসব কয়েনে ৮৩ শতাংশ আয়রন পাওয়া যায়। এর সাথে এতে ১৭ শতাংশ ক্রোমিয়ামও মেশানো হয়। এই সমস্ত জিনিসের পাশাপাশি এই কয়েনগুলিতে কিছু ছোটখাটো সংকর ধাতুও পাওয়া যায়। অন্যান্য ভারতীয় কয়েনে আকৃতি বা ছাপ রয়েছে, যার সুনির্দিষ্ট উদ্দেশ্য রয়েছে। কয়েনের উপর তৈরি আকৃতি বা ছাপটি নকশা নয়, এগুলোর সাথে জড়িয়ে আছে আমাদের ভারতের ইতিহাস।

 

Coins

এই আকৃতি বা ছাপের মাধ্যমে আমাদের, ভারতীয় ইতিহাসের সাথে সম্পর্কিত বিষয়গুলি জানায়। ভারতীয় কয়েন ছাড়াও, ভারতীয় নোটগুলিতেও আকৃতি রয়েছে, যা ভারতের ইতিহাস সম্পর্কে সূত্র দেয়। ভারতীয় নোটে একটি স্থানের আকৃতি ছাপা হয়। এই চিত্রটি আমাদের এই ইঙ্গিত দেয় যে, ভারতের ইতিহাসে সেসব স্থানের গুরুত্ব কী ছিল।