Skip to content

তৈরি করা হচ্ছে সমুদ্রের নীচে শহর, থাকবে হোটেল-শপিং মল সহ সমস্ত লাক্সারি সুবিধা

    জলভাগের নিচে তৈরি হতে চলেছে একটা গোটা শহর। হ্যাঁ, ঠিকই শুনছেন।সমুদ্রের তলদেশে একটি শহর (Underwater City) গড়ার পরিকল্পনা করছেন বসতি স্থাপনকারী এক ব্যক্তি। এই শহরে থাকবে কাজের অফিস, হোটেল, দোকান সহ আরোও একাধিক সুবিধা। কে ও কোথায় এটি তৈরি করছেন এ এবং কেমন হতে চলেছে সেই জীবনযাত্রা আসুন তা বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।

    জলের নিচে এই শহরের সুযোগ-সুবিধা সম্পর্কে জানলে আপনি অবাক হয়ে যাবেন। জাপানের বহুজাতিক কোম্পানি ‘শিমিজু কর্পোরেশন’ যেটি জাপান ও সারাদেশের জন্য অত্যাধুনিক নির্মাণ প্রকল্পের পরিকল্পনা করছে। এই শহরটিতে হাজার হাজার মানুষের থাকার ঘর, খাবার, মল, হোটেল, মার্কেট ঘোরাফেরা সমস্ত রকম সুবিধা থাকবে।

    Underwater city

    • শহরটির জীবনযাত্রা।

    ভূপৃষ্ঠের উপরে থাকা যে কোন শহরের মতোই সুযোগ-সুবিধা থাকছে জলের নিচে এ শহরটিতে।জলের তলদেশে এই শহরটি ওশান স্পাইরাল প্রস্থটি হবে চারটি ফুটবল মাঠের সমান এবং সমুদ্রপৃষ্ঠের দু-ই মাইল গভীরে অবস্থিত হবে। জাপানের ঐ সংস্থাটি এই প্রজেক্ট এর একটি ব্লু প্রিন্ট প্রকাশ করেছে যার মাধ্যমে আপনি একটি ধারণা করতে পারবেন এই শহরটি সম্পর্কে।

    Underwater city in Japan

    • শহরের কোথায় কি থাকবে?

    মূলত তিনটি জনে(Zone) এই শহরটিকে তৈরি করা হচ্ছে। 200 মিটার নিচে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ স্পাইরাল ওয়ের এর ব্লু গার্ডেন তৈরি করা হবে। এই শহরে খাদ্য ও আসবাবপত্র কেনার জন্য মার্কেট তৈরি করা হবে। এখনো পর্যন্ত এই শহরটিকে পাঁচ হাজার জন থাকার ক্যাপাসিটিতে তৈরি করা হলেও ভবিষ্যতে এই ক্যাপাসিটি আরো বাড়ানো হবে বলে জানানো হচ্ছে।

    Sea City

    • কবে শেষ হবে প্রকল্পের কাজ?

    যেহেতু এটি একটি অত্যন্ত বৃহৎ ও ইউনিক একটি প্রজেক্ট সেজন্য জাপানি ঐ সংস্থার তরফ থেকে জানানো হচ্ছে আগামী 2035 সালের মধ্যে আন্ডার ওয়াটার সিটি তৈরি হয়ে যাবে।