Skip to content

ডায়াবেটিসে ভুগছেন? এই ৫ টি সবজি আপনার খাবারের তালিকায় আজই যুক্ত করুন!

    ডায়াবেটিসের জন্য ফাইবার সমৃদ্ধ শাকসবজি: আপনি যদি ডায়াবেটিস পরিচালনা করেন, পুষ্টিসমৃদ্ধ, উচ্চ ফাইবারযুক্ত শাকসবজি খাওয়া রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে এবং দীর্ঘমেয়াদে সুস্বাস্থ্য বজায় রাখতে সাহায্য করতে পারে।  আপনার যদি ডায়াবেটিস থাকে, তবে আপনার জন্য স্বাস্থ্যকর খাদ্য গ্রহণ করা প্রয়োজন, অন্যথায় আপনাকে হার্ট অ্যাটাক এবং কিডনি রোগের মতো বিপজ্জনক রোগের মুখোমুখি হতে হতে পারে।  গ্রেটার নয়ডার জিআইএমএস হাসপাতালে কর্মরত একজন বিখ্যাত ডায়েটিশিয়ান ডাঃ আয়ুশি যাদব জি নিউজকে বলেছেন যে কোন ফাইবার সমৃদ্ধ শাকসবজি ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য উপকারী প্রমাণিত হতে পারে।

    গাজর (Carrot)

    Carrot

    অ-স্টার্চি শাকসবজিতে থাকা ফাইবার আমাদের পরিপূর্ণ এবং সন্তুষ্ট বোধ করতে সাহায্য করে।  স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা গাজর খাওয়ার পরামর্শ দেন, বিশেষ করে ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য উচ্চ আঁশযুক্ত সবজি হিসেবে।  এছাড়াও গাজরে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ, যা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা এবং চোখকে সুস্থ রাখতে সাহায্য করে।

    ব্রকলি (Broccoli)

    Broccoli

    ক্ষুধা নিবারণে সাহায্য করার পাশাপাশি, ফাইবার সমৃদ্ধ এই সবজি প্রিবায়োটিক হিসেবে কাজ করে।  এগুলি আমাদের অন্ত্রের ব্যাকটেরিয়া দ্বারা গাঁজন করা হয়, যা তাদের উন্নতি করতে সহায়তা করে।  কিছু ক্ষেত্রে, এটি গ্লুকোজ এবং কোলেস্টেরল বিপাককে সাহায্য করে।  এই কারণেই ব্রকলি ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য একটি দুর্দান্ত বিকল্প।

    বাঁধাকপি (Cabbage)

    Cabbage

    বাঁধাকপিতে ভিটামিন সিও বেশি থাকে, যা হার্টের স্বাস্থ্যের ওপর ইতিবাচক প্রভাব ফেলে।  আপনি যা খাচ্ছেন তার হজমকে ধীর করার জন্য এতে প্রচুর ফাইবার রয়েছে, যা রক্তে শর্করার বৃদ্ধি রোধ করতে সাহায্য করবে, তাই ডায়াবেটিস রোগীদের তাদের দৈনন্দিন খাদ্যতালিকায় এটি অন্তর্ভুক্ত করা উচিত।

    শসা (Cucumber)

    Cucumber

    আপনি প্রায়শই স্যালাড আকারে শসা খেয়ে থাকেন, কিন্তু আপনি কি জানেন যে শরীরকে হাইড্রেট রাখার পাশাপাশি এটি ডায়াবেটিস রোগীদেরও সাহায্য করে।  বেশ কিছু গবেষণায় দেখা গেছে যে শসা রক্তে শর্করার মাত্রা কমাতে এবং নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে।

    টমেটো (Tomato)

    Tomato

    পুরো দানা স্যান্ডউইচে অতিরিক্ত টমেটো ভর্তা রাখলে তা ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য উপকারী হবে। টমেটোতে প্রচুর পরিমাণে লাইকোপিন রয়েছে, এটি একটি যৌগ যা হৃদরোগ এবং কিছু ক্যান্সারের ঝুঁকি কমাতে পারে।