আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যেই বাংলার একাধিক জেলাতে রয়েছে বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির আশঙ্কা, ফের নামবে রাজ্যজুড়ে তাপমাত্রার পারদ

গতকালের থেকে ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেয়েছে কলকাতায়। তবে শীতের দাপট কমে গেছে তা একেবারেই বলা যায় না। আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে জানা যাচ্ছে, আগামী কয়েকদিনে ফের জাঁকিয়ে ঠান্ডা পড়বে কলকাতা ও দক্ষিণের জেলাগুলিতে। আগামী রবিবার থেকে বুধবার অবধি থাকবে কনকনে শীত৷ কয়েক ডিগ্রি তাপমাত্রার পারদ নামতে পারে শহরে।

 


বিগত কয়েক বছরে মাঘের শীত এর কনকনে ভাব তেমন ছিল না৷ কিন্তু এই বছর জানুয়ারি থেকেই শীত শীত ভাবটা টের পাচ্ছে শহরবাসী। সকাল থেকে কনকনে উত্তুরে হাওয়ায় কেঁপে উঠছে বঙ্গবাসী। বেলা বাড়লে রোদ এর তাপ একটু আরাম দিলেও আবার রাত নামলেই ফের জাঁকিয়ে ঠান্ডা পড়ছে। শনিবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৫.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি কম।অন্যদিকে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ২৮.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস থাকবে যা স্বাভাবিকের তুলনায় ১ ডিগ্রি বেশি।

 

আবহাওয়া

এইদিন বাতাসে সর্বোচ্চ এবং সর্বনিম্ন আপেক্ষিক আদ্রতার পরিমাণ হবে ৯৯ এবং ৩৪ শতাংশ।রবিবারে শহরেও হালকা বৃষ্টির পূর্বাভাস আছে। শনিবার দুপুরের পর থেকে রাজ্যজুড়ে বিক্ষিপ্ত ভাবে মেঘলা আবহাওয়া থাকবে।তবে রবিবারের পর থেকে ফের ঠাণ্ডা বাড়বে৷ কলকাতার তুলনায় বিভিন্ন জেলার তাপমাত্রা অনেকটা কম। চলতি সপ্তাহের পর থেকে তাপমাত্রা বাড়তে পারে৷তবে জেলায় শীত-এর আমেজ থাকবে৷

 

উত্তরবঙ্গে ঘন কুয়াশা থাকবে৷ ভোরে ও রাতের দিকে ঘন কুয়াশার জেরে দৃশ্যমানতা ৫০ মিটারের নীচে নেমে যেতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর। জম্মু-কাশ্মীরে পশ্চিমী ঝঞ্ঝার প্রবেশ এবং পরবর্তী কালে তা উত্তর ভারতের দিকে অগ্রসর হবে। বুধবারের পর থেকে বাংলায় তার প্রভাব পড়তে পারে। তাপমাত্রা ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত কমতে পারে। উত্তর-পশ্চিম ভারতে তুষারপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। সিকিম ও দার্জিলিঙে বরফ পড়তে পারে। সপ্তাহান্তে রাজ্যেও বৃষ্টি হতে পারে৷

 

আবহাওয়া

আবহাওয়া দপ্তরের তর প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী জানতে পারা যাচ্ছে ঘন কুয়াশা থাকবে মালদা, উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুর এবং কোচবিহারে। পাশাপাশি সিকিম এবং দার্জিলিং এ তুষারপাতের সম্ভাবনা আছে। উত্তরবঙ্গের বেশকিছু পাহাড়ি জেলায় হতে পারে শিলাবৃষ্টি। বর্তমানে পশ্চিমী ঝঞ্ঝার জেরে রাজ্যের তাপমাত্রার পারদ বাড়লেও উত্তর পশ্চিম ভারতে তুষারপাতের জেরে রাতের তাপমাত্রা কমবে। ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি সময়ে আবারো তাপমাত্রা কমার সম্ভাবনা আছে।