Skip to content

সোনার দামও হার মানবে, এই চা পাতার কাছে! জেনে নিন বিশ্বের সবচেয়ে দামি চায়ের দাম ও এর বিশেষত্ব

    img 20221126 200951

    প্রত্যেক ভারতীয়দের কাছেই এক কাপ চা (One Cup Tea) যেন রোজের ভাত-রুটির মতোই প্রয়োজনীয়। বহুবার দেখা গেছে, এক কাপ সুস্বাদু চায়ের স্বাদ গ্রহণের সাথে সাথে সারাদিনের ক্লান্তি দূর করার জন্য মানুষ কয়েক মাইল পাড়ি দিতেও বিন্দুমাত্র দ্বিধাবোধ করে না। তবে চায়ের চাহিদা অত্যাধিক পরিমাণে বৃদ্ধি পাওয়ায় বাজারে বিভিন্ন দামের চা আপনি পেয়ে যাবেন।  তাই আজ এই প্রতিবেদনে এমন একটি চা পাতার কথা বলব যার দাম সোনার থেকেও ২০ গুণ বেশি।

    Tea leaves

    বিশ্বের সবচেয়ে দামি চা-টির নাম হল দা হং পাও (Da Hong Pao)। একটি বেসরকারি প্রতিবেদনে বিশ্বের সবচেয়ে দামি এই চা পাতার দামের সাথে সোনার মূল্যের তুলনা করা হয়েছে। ২০১৬ সালে এই চা পাতার এক একটি পাতার দাম ছিল ৬ লক্ষ ৭২ হাজার টাকা। এই চা পাতা পাওয়া যায়, চীনের ফুজিয়ান প্রদেশের উউই পাহাড়ে।

    Tea

    এই দামি চা-এর উৎপত্তি নিয়ে একটি গল্প রয়েছে। একদিন একটি ছাত্র বেইজিং যাচ্ছিল পরীক্ষা দিতে। তবে মাঝ পথেই তার শরীর খারাপ হয়ে যায়। শরীর খারাপ হয়ে পড়ায় ছাত্রটি মন্দিরের একটি সন্ন্যাসীর থেকে সাহায্য চাইলে, তখন সেই সন্ন্যাসী উউই পাহাড়ের এই চা এনে তাকে একবাটি তৈরি করে পান করিয়েছিলেন। এই চা টি পান করা মাত্রই ছাত্রটি সুস্থ বোধ করতে থাকে এবং সুষ্ঠুভাবে পরীক্ষা দিতে যেতে পারে।

    Expensive tea

    এছাড়াও এই চা পাতা সম্পর্কে রয়েছে আরও অনেক গল্প। যখন সে দেশের সম্রাটের স্বাস্থ্যের অবস্থা খারাপ ছিল তখন সেখানের ডাক্তার পন্ডিত সম্রাটকে এই চা পাতার চা তৈরি করে খাইয়েছিলেন। এই চা পাতার গুণে সম্রাট ধীরে ধীরে সুস্থ হওয়ায় পন্ডিতকে সেই সময়ের সবচেয়ে সম্মানীয় লাল কাপড় উপহার দিয়েছিলেন এবং হুকুম দিয়েছিলেন, যদি কেউ এই পথ দিয়ে যায় তাহলে সে যেন তার লাল কাপড় ওই চা গাছে ফেলে দেয়। প্রতিটি ওই চায়ের নাম হয়, রেড রোব (Red Robe) বা চীনা ভাষায় দা হোং পাও (Da Hong Pao)।

    See also  ১৯৭১ সালে মসলা দোসা ও কফির দাম শুনলে হয়ে যাবেন অবাক, দেখুন সেই সময়ের একটি পুরনো বিলের ছবি!

    Harbal tea

    সাধারণত চিকিৎসকরা, অতিরিক্ত পরিমাণে চা পান না করার জন্য সকলকে সতর্ক করেন। তবে বিশ্বের এই দামি চা পাতা সকলের স্বাস্থ্যের জন্যই ভীষণ উপকারি। সারাদিনে এই চা একবার পান করলেও শরীরের সমস্ত ক্লান্তি দূর হয়ে যায়, সাথে খুব ভালোভাবে রক্ত সঞ্চালন হয়। এছাড়াও এই চা ওজন কমাতে ও ত্বকের যেকোনও বিষয়ে ভীষণ উপযোগি।