সরকারও করবে সাহায্য মাত্র 5 হাজার টাকা দিয়ে শুরু করুন এই ব্যবসা মাসিক আয় হবে লক্ষ লক্ষ টাকা

বিগত বছরে করোনা অতিমারীর ফলে দারুণভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ভারতের অর্থনীতি। একইসঙ্গে ভেঙে পড়েছে দেশের সাধারণ মানুষের অর্থনৈতিক অবস্থা। অনেকেই নিজেদের চাকরি হারিয়েছেন, কমে গেছে মাসিক আয়। এমন অবস্থায় বেশিরভাগ মানুষই নতুন নতুন ব্যবসার কথা নিয়ে ভাবছেন। আজ এখানে আপনাকে এমন একটি ব্যবসার কথা বলব যা অত্যন্ত কম বিনিয়োগেই আপনিও শুরু করতে পারবেন।

শুধু তাই নয়, এই ব্যবসার ফলে একদিকে যেমন আপনি সরকারি সাহায্য পাবেন, তেমনি অপরদিকে উৎপাদিত জিনিস বিক্রির বিষয়ে কোন চিন্তাও করতে হবে না।

Start a business

ভারতবাসীরা সাধারণত চা প্রেমী। আর প্লাস্টিক বা কাগজের তৈরি কাপ-এর তুলনায় মাটির ভাঁড়ে চা খাওয়ার আমেজই যে আলাদা এ বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই। দেশের বেশিরভাগ মানুষই প্লাস্টিক, কাগজের তৈরি কাপে চা খেতে পছন্দ করেন না। এমনকি বর্তমানে সরকারি তরফেও মাটির ভাঁড়কে বেশি উৎসাহিত করা হচ্ছে। মাটির ভাঁড়ের এই জনপ্রিয়তার কথা মাথায় রেখে আপনিও মাটির ভাঁড় তৈরির ব্যবসা শুরু করতে পারেন।

ব্যবসা

মাত্র ৫০০০ টাকা বিনিয়োগ করে আপনি এই ব্যবসা শুরু করতে পারেন। সাধারণত ১০০ টি চায়ের ভাঁড়ের পাইকারি দাম ৫০ টাকা। এছাড়াও ১০০ টি লস্যির মাটির ভাঁড়ের দাম ১৫০ টাকা। শুধু তাই নয়, আপনি যদি কারুকার্যখচিত মাটির ভাঁড় তৈরি করতে পারেন তাহলে তার দাম আরো বেশি।

Business idea

বর্তমানে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকেও বড় সাহায্য পাওয়া যেতে পারে। কেন্দ্রীয় সরকার সারাদেশে কুমোরদের ব্যবসাকে আরও উন্নত করার জন্য বৈদ্যুতিক চাকা প্রদান করছে। যার সাহায্যে মাটির কলসি, মাটির ভাঁড় সহ বিভিন্ন মাটির তৈরি জিনিস আপনি তৈরি করতে পারবেন। জানিয়ে রাখি, বিভিন্ন বিবাহ অনুষ্ঠান ও উৎসবেও এখন মাটির ভাঁড়ের বহুল ব্যবহার শুরু হয়েছে। শুধুমাত্র চায়ের দোকান নয়, বড় বড় ক্যাফে এবং রেস্তোরাঁতেও কারুকার্যখচিত সুন্দর মাটির ভাঁড় ব্যবহৃত হচ্ছে।