Skip to content

Airtel গ্রাহকদের জন্য দুর্দান্ত সুখবর! এবার ফোনের পাশাপাশি আপনার বাড়িও থাকবে সুরক্ষিত, নতুন পরিষেবা নিয়ে এলো Airtel

    ভারতের দ্বিতীয় বৃহত্তম বেসরকারি টেলিকম কোম্পানি Airtel গ্রাহকদের জন্য নানা সময়ই আকর্ষণীয় রিচার্জ সংক্রান্ত অফার নিয়ে আসে। কিন্তু এবার এই টেলিকম কোম্পানি গ্রাহকদের জন্য নিয়ে এলো সম্পূর্ণ অন্য ধরনের অফার। Airtel টেলিকম কোম্পানি এবার সাব ব্র্যান্ড চালু করার মাধ্যমে Home Surveillance(গৃহ নজরদারি) Solution শুরু করতে চলেছে। এই পরিষেবার মাধ্যমে আপনার বাড়ি কে সুরক্ষিত করতে চলেছে Airtel টেলিকম সংস্থা। আসুন হোম সার্ভিলেন্স সলিউশন পরিষেবার সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

    Airtel home surveillance

    দিল্লি-এনসিআর-এ X-Safe (এক্স-সেফ) ব্র্যান্ডের আওতায় স্মার্ট হোমগুলির জন্য নতুন নজরদারি পরিষেবার (surveillance service) পাইলট টেস্টিংয়ের উদ্যোগ নিয়েছে এয়ারটেল(Airtel)সংস্থাটি। গ্রাহকরা এই পরিষেবা সাবস্ক্রিপশন এর মাধ্যমে নিতে পারেন। আপনি মাসিক অথবা বার্ষিক দুই রকমের সাবস্ক্রিপশন নিতে পারেন। মাসিক সাবস্ক্রিপশন হলো 99 টাকা। এবং বার্ষিক সাবস্ক্রিপশন হলো 999 টাকা।

    বর্তমানে এই পরিষেবা আপাতত পাইলট টেস্টের অংশ হিসেবে, ভারতের নিউ দিল্লি রাজধানীর (নিউ দিল্লি)কয়েকটি Airtel Xstream Fiber ব্রডব্যান্ড গ্রাহকদের জন্য উপলব্ধ। এক্স-সেফ সলিউশনের মধ্যে এইচ. 265 কম্প্রেশন, 360 ডিগ্রি ভিউ, কালার নাইট (colour night) ভিশন, আইপি (vision IP) 67 রেটিং, প্রাইভেসি শাটার (privacy shutter)এবং হিউম্যান ডিটেকশনের (human detection) মতো অত্যাধুনিক ফিচার সহ ইনডোর (Indoor)এবং আউটডোর (outdoor) সিকিউরিটি এইচডি (HD) ক্যামেরার একটি বিস্তৃত রেঞ্জ অন্তর্ভুক্ত।

    বাড়িতে বসেই স্মার্ট মোবাইলের সাহায্যে অপারেটিং (operating) করতে পারবেন । গ্রাহকরা ওই মাসিক বা বার্ষিক সাবস্ক্রিপশনে কোম্পানির ক্লাউড স্টোরেজ(cloud storage) পরিষেবায় অ্যাক্সেস অন্তর্ভুক্ত থাকবে, যেখানে ভিডিওগুলি সেভ করা হবে। আরও জানা গেছে যে, গ্রাহকদের বেছে নেওয়ার জন্য সংস্থাটি বর্তমানে তিনটি ক্যামেরা অপশন অফার করছে। শুধুমাত্র ক্যামেরার জন্য এককালীন কিছু অর্থ বহন করতে হবে গ্রাহকদের।

    See also  একসময় বলিউডে খ্যাতির শীর্ষে ছিলেন এই ৫ জন অভিনেত্রী, কিন্তু এই কারণে অভিনয় জগতকে দিয়েছেন বিদায়!

    Bharti Airtel

    Airtel-এর মতো জনপ্রিয় সার্ভিস প্রোভাইডাররা এই ধরনের পরিষেবার উদ্যোগ নেওয়া শুরু করলে ভবিষ্যতে ইউজাররা যে আরও অনেক বেশি জোরদার নিরাপত্তা ব্যবস্থা পেতে সক্ষম হবেন, তা নিঃসন্দেহে বলা যায়। ভবিষ্যতে smart home gadget গুলিতে এয়ারটেল নিজের জায়গা করে নেবে। বর্তমানে এই পরিষেবা পাইলট প্রজেক্ট এর আওতায় থাকলেও আশা করা যাচ্ছে সফল টেস্টিং এর পর সারাদেশের গ্রাহকরা এই পরিষেবা ব্যবহারের সুযোগ পাবে।