Skip to content

বাড়ি বাড়ি গিয়ে মিটারে রিডিং দেখার দিন শেষ, এবার রাজ্যে বসতে চলেছে ৩৭ লক্ষ স্মার্ট মিটার

    img 20221229 102214

    আমাদের ভারতের প্রতিটি ঘরে ঘরে বিদ্যুতের চলন অনেক দেরিতে শুরু হয়। তখন মানুষ মোমবাতির সাহায্যে চারিদিক আলোকিত করতো, নিজের ঘরকে আলোকিত করতো। সেই সময় মাথার উপর সিলিং ফ্যান লাগিয়ে হাওয়া খাওয়ার চলন ছিল না তখন পাখার স্থানে ব্যবহার করা হতো হাতপাখা।

    Digital meter

    তবে সভ্যতার উন্নতি ঘটার সাথে সাথে বিদ্যুৎ শক্তি উৎপাদন হতে শুরু করে। বর্তমানে সেই বিদ্যুৎ শক্তি ছাড়াই মানুষের জীবন সম্পূর্ণ অচল। এই বিদ্যুৎ শক্তির সাহায্যে শুধু আলো কিংবা পাখা চলে তা নয়, সবচেয়ে আধুনিক প্রযুক্তি কম্পিউটারও এই বিদ্যুৎ শক্তির মাধ্যমেই চলে। যেখানেই আমাদের ইলেকট্রিসিটি প্রয়োজন হয় সেখানেই আমরা মিটার বক্স লাগাই। এই মিটার বক্স থেকেই দেখা যায় কত বিদ্যুৎ খরচ হয়েছে প্রতি মাসে আর সেই অনুযায়ী আমাদের ইলেকট্রনিক অফিসে অর্থ দিতে হয়।

    Electric meter

    এবার সেই ইলেকট্রনিক মিটার নিয়েই সম্প্রতি একটি নতুন খবর প্রকাশ পেয়েছে। এবার প্রতিটি রাজ্যে চালু হচ্ছে স্মার্ট মিটার বক্স (Smart Meter Box)। এই স্মার্ট মিটার বক্স এর মাধ্যমে বিদ্যুৎ দপ্তরে কাজ করা সেই সব কর্মী যারা বাড়িতে এসে মিটার বক্স দেখে যায়, তারা এবার অফিসে বসেই কত যে মিটার খরচ হয়েছে তা দেখতে পাবে। এই কথা জানিয়েছেন, স্বয়ং অরূপ বিশ্বাস (Arup Biswas)।

    Meter

    বুধবার বিধানসভায় অরূপ বিশ্বাস জানান, ‘রাজ্যজুড়ে পরিকল্পনা করা হচ্ছে যে ৩৭ লক্ষ স্মার্ট মিটার বসানোর।’ ধাপে ধাপে বাস্তবায়িত হতে চলেছে এই পরিকল্পনা। রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে স্মার্ট মিটার গুলি বসানো হব। এই নতুন ব্যবস্থা চালু করার ক্ষেত্রে বিদ্যুৎ ব্যবস্থায় যারা রয়েছেন তাদের বিশেষভাবে সুবিধা হবে।

    See also  শাহরুখ থেকে শুরু করে দীপিকা, জন, 'পাঠান' সিনেমার অভিনেতা অভিনেত্রীদের শিক্ষাগত যোগ্যতা কতদূর? জেনে নিন

    Meter reading

    এছাড়াও অরূপ বাবু জানিয়েছেন, এই নতুন প্রকল্পটির জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে ৬০ শতাংশ অর্থ পাওয়া যাবে এবং ৪০ শতাংশ অর্থ পাওয়া যাবে রাজ্য সরকারের তরফ থেকে। অর্থাৎ মোট খরচ হবে ১১ কোটি ৮৯ লক্ষ টাকা। এই প্রকল্পের আওতায় রাজ্যে তৈরি করা হবে ৮৭টি সাব স্টেশন।