Skip to content

বিয়ে বাড়িতে ডান্স করে চালাতেন সংসার, জুটতো না দু’মুঠো খাবারও, এইভাবে বদলে যায় ভাগ্য

    চলচ্চিত্র জগতের ইতিহাসে মিঠুন চক্রবর্তী (Mithun Chakraborty) একটি বড় নাম। মাত্র 26 বছর বয়সে ‘মৃগয়া’ ছবির মাধ্যমে বলিউডে অভিষেক হয় তার। এর জন্য তিনি সেরা অভিনেতার জাতীয় পুরস্কারও পেয়েছিলেন। মিঠুন বর্তমানে কোটি কোটি টাকার সম্পত্তির মালিক হলেও একটা সময় ছিল যখন দুবেলা খাবার এর জন্য তাকে বিয়ে বাড়িতে নাচতে হতো।

    Mithun Chakraborty

    1993 থেকে 1998 পর্যন্ত, মিঠুনের খারাপ সময় ছিল। এ সময় তার 33 টি ছবি ফ্লপ হয়। এমতাবস্থায় দুবেলা রুটির জন্য বড় বড় লোকের দলে নাচতেন। টাকাসহ একবেলা রুটি পাবে এই আশায় বিভিন্ন বিয়েতে নাচতে যেতে হতো। টাকার অভাবে তিনি পায়ে হেঁটে চলচ্চিত্র নির্মাতাদের অফিসে ঘোরাঘুরি করতেন।

    Mithun Chakraborty

    ‘হুনারবাজ’ শোতে মিঠুন এ কথা জানিয়েছেন যে তিনি অনুষ্ঠানের বিচারক ছিলেন, যখন তিনি একজন প্রতিযোগীর গল্প শুনে আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন। এরপর তিনি তার জীবনের সংগ্রামের বর্ণনা দেন। তার গল্প শুনে সেখানে উপস্থিত মানুষের চোখ ভিজে ওঠে।

    Mithun Chakraborty

    মিঠুন চক্রবর্তীর (Mithun Chakraborty) চলচ্চিত্র যাত্রা 45 বছর বিস্তৃত। এই সময়ে তিনি ‘ওয়ারদাত’, ‘অবিনাশ’, ‘ফাঁদ’, ‘ডিস্কো ড্যান্সার’, ‘চরণের সৌগন্ধ’, ‘হামসে হ্যায় জামানা’, ‘দুর্নীতি’, ‘ঘর এক মন্দির’, ‘ওয়াতন কে রক্ষক’, ‘অভিনয়’ করেছেন। হামসে হ্যায় ‘বাদ কৌন’, ‘বক্সার’, ‘বাজি’, ‘কসম পান্ডে ওয়াল কি’, ‘পেয়ার ঝুকতা না’ ইত্যাদি সুপারহিট ছবি তিনি দর্শকদের উপহার দিয়েছেন। তারপর থেকে আর এই অভিনেতাকে আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি।