Skip to content

5G ইন্টারনেট পরিষেবা ব্যবহার করার সময় যে প্রধান ৫ টি সমস্যার সম্মুখীন আপনাকে হতে হবে!

    img 20221011 182244

    ভারতে ফাইভ জি পরিষেবা শুরু হতে চলেছে আনুষ্ঠানিকভাবে পয়লা অক্টোবর (1st October) থেকে। সম্প্রতি দেশের মোট ৮টি বড় বড় শহরে এই Airtrl 5G Internet পরিষেবা চালু থাকবে। এছাড়াও Jio ৪টি বড় শহরে ফাইভ-জি নেটওয়ার্কের পরীক্ষা শুরু করে দিয়েছে। এখনো পর্যন্ত আমরা প্রতিটা প্রতিবেদন থেকে 5G পরিষেবার সুবিধা সম্পর্কে জেনেছি কিন্তু আজ এই প্রতিবেদনে 5G যে পরিষেবার ৫টি অসুবিধার কথা জানবো। যা ব্যবহারকারীদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ হবে।

    5G

    বিশেষজ্ঞদের মতে, 5G সংযোগের পরিসর খুব বেশি নয়।  ফ্রিকোয়েন্সি তরঙ্গ শুধুমাত্র অল্প দূরত্ব পর্যন্ত ভ্রমণে সক্ষম। তবে আসল বিষয়টি এই যে 5G ফ্রিকোয়েন্সিগুলি গাছ, টাওয়ার, দেয়াল এবং বিল্ডিংয়ের মতো বাধা দ্বারা ব্যাহত হতে পারে।  এটি এড়ানোর একমাত্র উপায় হল 5G টাওয়ারের সংখ্যা আরও বাড়ানো, যাত এই সমস্যার সমাধান করতে পারে।  যাইহোক, এই সমাধান অনেক খরচ।

    রোলআউটে বড় বিনিয়োগ প্রয়োজন (Rollout requires large investment)

    5G অবকাঠামো তৈরি করতে বা বিদ্যমান সেলুলার অবকাঠামো আপগ্রেড করতে অনেক খরচ প্রয়োজন।  এই পরিমাণ উচ্চ-গতির সংযোগের জন্য প্রয়োজনীয় সরঞ্জামগুলির রক্ষণাবেক্ষণের খরচ দ্বারা আরও জটিল হয়ে পড়ে।  এর ফলে সম্ভবত কোম্পানিগুলো গ্রাহকদের কাছ থেকে এই বর্ধিত খরচ পুনরুদ্ধার করবে। 5G কোম্পানিগুলি একে অপরের সাথে টাই আপ করে এবং একে অপরের 5G টাওয়ার ব্যবহার করে তাদের খরচ কমাতে পারে।

    5G network

    5G ইন্টারনেট ব্যাটারির আয়ু কমিয়ে দেবে (5G internet will reduce battery life)

    5G পরিষেবার গতির কারণে, মোবাইলের বেশিরভাগ অংশই কাজ করবে, যার কারণে মোবাইলে ব্যাটারি খরচও আগের চেয়ে বেশি হয়ে যাবে। এই পরিস্থিতিতে এর প্রত্যক্ষ প্রভাব মোবাইলের ব্যাটারির উপর পড়বে এবং ব্যাটারির আয়ুও কমে যাবে।

    See also  ফের বাড়তে চলেছে রিচার্জের দাম, দুটো সিম কার্ড ব্যবহার করা গ্রাহকরা পড়বেন সমস্যায়!

    আপলোড স্পীড ডাউনলোড স্পিড থেকে অনেক কম হবে (Upload speed will be much lower than download speed)

    আমরা আগেই জেনেছি 5G তে ডাউনলোড স্পিড অনেক বেশি।  যেখানে আপলোডের গতি খুবই কম।  ডাউনলোডের গতি 1.9Gbps ​​পর্যন্ত হতে পারে, আপলোডের গতি খুব কমই 100Mbps-এর বেশি হয়।

    5G

    এছাড়াও বলা যায়,  5G ইন্টারনেটের ওয়েব দৈর্ঘ্য খুবই কম, এইরকম পরিস্থিতিতে, শহরগুলিতে ঘন জনসংখ্যার কারণে, একটি 5G টাওয়ার অনেক লোককে কভার করতে পারে। কিন্তু গ্রামের দিকে ঠিক তার বিপরীত অবস্থা হয়। কোম্পানিগুলির পক্ষে গ্রামে এখনই আরও বেশি টাওয়ারের সংখ্যা স্থাপন করা সম্ভব হবে না। তাই এই পরিস্থিতি থাকার জন্য শহরের তুলনায় গ্রামের মানুষরা 5G  পরিষেবার সুবিধা খুবই কম পাবে।