মাত্র ১৫০০ টাকায় ঘুরে আসুন পুরী, তিরুপতি, মাদুরাই, কন্যাকুমারী, জানুন কিভাবে

মধ্যবিত্ত এবং নিম্নমধ্যবিত্ত পরিবারের, যাদের ঘুরতে যাওয়ার সখ থাকলেও অর্থের অভাবে ঘুরতে যেতে পারেন না, তাদের জন্য এবার বড়োসড়ো সুযোগ নিয়ে এলো ইন্ডিয়ান রেলওয়ে ক্যাটারিং এন্ড ট্যুরিজম কর্পোরেশন। কম খরচে যে সমস্ত মানুষ দক্ষিণ ভারতের ঘুরতে চান, তাদের জন্য এই সংস্থা নিয়ে এসেছে একটি বড়সড় প্যাকেজ। এই সংস্থা আগেই ঠিক করেছিল, দু’রকম খরচে তীর্থযাত্রীদের জন্য প্যাকেজ বানানো হবে।

প্রথমত সাধারণ শ্রেণীতে যারা যাতায়াত করবেন তাদের মাথাপিছু দৈনিক খরচ হবে ৯০০ টাকা, দ্বিতীয়ত যারা কিছুটা বিশেষ সুযোগ-সুবিধা নিয়ে দক্ষিণ ভারত ঘুরতে চান, তাদের দৈনিক খরচ হবে প্রায় ১৫০০ টাকা। আগামী বছরের জানুয়ারি মাসে দক্ষিণ ভারত ভ্রমণের এই সুযোগ দিচ্ছেন আইআরসিটিসি। মূলত বাংলা যাত্রীদের কথা ভেবে এই অফার দিয়েছেন তারা এই ভ্রমণ কতটা আকর্ষণীয় হতে চলেছে বাংলা তীর্থযাত্রীদের জন্য, তা স্পষ্ট হয়ে যায় কোন কোন স্টেশন থেকে যাত্রীদের ট্রেনে তোলা হবে তা ঘোষণার মধ্য দিয়ে।

আগামী ১৬ ই জানুয়ারি থেকে শুরু হবে এই ভ্রমণ যাত্রা, ট্রেনে চেপে ১১ দিনের ভ্রমণ করে আপনি ফিরবেন বাড়ি। যাত্রীরা উঠতে পারবেন বাংলার পাকুর, রামপুরহাট, বোলপুর, বর্ধমান, ডানকুনি, আন্দুল, খড়গপুর, মেচেতা থেকে। যাত্রীদের নিয়ে যাওয়া হবে তিরুপতি, মাদুরাই ,কন্যাকুমারী রামেশ্বরম এবং পুরি। যাত্রা পথে ধর্মশালায় রাত কাটাতে চাইলে সে ক্ষেত্রে খরচ হবে ১০ হাজার ৩৯৫ টাকা এবং হোটেলে থাকতে গেলে খরচ হবে ১৭ হাজার ৩২৫ টাকা।

 

আপনি যদি আইআরসিটিসি সঙ্গে এই ভ্রমণে যেতে চান তাহলে তাদের ওয়েবসাইটে গিয়ে আপনি বিস্তারিত জানতে পারবেন। এই প্রসঙ্গে আইআরসিটিসি গ্রুপ জেনারেল ম্যানেজার দেবাশীষ চন্দ্র বলেন, “বর্তমান পরিস্থিতি আরও একবার স্বাভাবিক হওয়ায় পর্যটনশিল্প মাথাচাড়া দিয়ে দাঁড়াচ্ছে। এই সময় আমরা এমন কিছু প্রকল্প শুরু করতে চলেছি যাতে কম পয়সায় মানুষ মনের মত করে ঘুরতে পারেন।

এই প্রকল্প তৈরি করার পর পর্যটন শিল্পের উন্নতি এবং কিছু মানুষের কর্মসংস্থান বাড়বে। এই প্রকল্পে যদি সাড়া পাওয়া যায় তাহলে ভবিষ্যতে আমরা আরো এরকম প্রকল্পের জন্য প্রস্তুত হতে পারি”।