পুরনো 50 পয়সার এই বিশেষ কয়েনটি থাকলে এখন আপনিও হতে পারেন লক্ষ টাকার মালিক, বিস্তারিত জানতে

অনেক মানুষেরই পুরনো কয়েন একত্রিত করে রাখার শখ থাকে। যদি আপনারও এইরকমই পুরনো কয়েন একত্রিত করে রাখার শখ থেকে থাকে তাহলে এই খবরটি আপনার জন্যই। প্রকৃতপক্ষে, বেশ কিছু পুরনো কয়েনের মূল্য আজ অনেক বেড়ে গেছে। আজ এখানে এই রকমই এক কয়েনের কথা আমরা আলোচনা করব, যা থাকলে আপনিও লাখপতি হতে পারেন। আপনাদের বলে রাখি যে, পুরনো কয়েন বিক্রি করে অনেকেই কোটি টাকা পর্যন্ত আয় করেছেন।

50 paisa special coinঅনলাইন নিলামিতে সেই পুরনো কয়েন গুলির খুবই ভালো দাম পাওয়া যায়। যাতে করে কোনো রকম ঝামেলা ছাড়া আপনিও টাকা আয় করতে পারেন। যদি আপনার কাছেও 50 পয়সার (paisa) এই পুরনো কয়েন থাকে তাহলে আপনিও এক লাখ টাকা পর্যন্ত পেতে পারেন। এর জন্য আপনাকে এই কয়েনটির অনলাইন নিলামি করতে হবে।

বস্তুত 2011 সালে 25 পয়সার কয়েন বানানো বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। এরপর সরকার এই 50 পয়সার (paisa) কয়েন বানানো বন্ধ করে দিয়েছিল। জিনিসের দাম বাড়ার সাথে সাথে এই কয়েনটির ব্যবহারও ধীরে ধীরে বন্ধ হয়ে গিয়েছিল এবং সরকার কয়েন টিকে বাজার থেকে তুলে নেয়। তবে এখন এই কয়েনটির অনলাইন নিলামি আপনাকে লাখপতি করে তুলতে পারে।

পুরনো জিনিস sale করা OLX কোম্পানিতে এই 50 পয়সার (paisa) কয়েন এক লাখ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এই কয়েনটির বিশেষত্ব হলো এটি 2011 তে তৈরি। এই সেই সাল যেই বছর 25 পয়সার কয়েন বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। যদি আপনার কাছেও এই 50 পয়সার কয়েন থেকে থাকে তাহলে আপনিও একদিনে লাখপতি হতে পারেন।

50 paisa

যদি আপনার কাছে 2011 সালে তৈরি এই 50 পয়সার কয়েন থাকে তাহলে আপনি OLX – এ এটি অনলাইন বিক্রি করতে পারেন। সেখানে খরিদ্দাররা এই দুর্লভ কয়েনটির জন্য মোটা টাকা দিতে রাজি আছে। এই

ওয়েবসাইটে কয়েনটি বিক্রি করার জন্য আপনাকে যা করতে হবে-

১. OLX- এ নিজেকে একজন বিক্রেতা হিসেবে রেজিস্টার করতে হবে।
২. এরপর কয়েনটির দুই পিঠের ফটো নিয়ে আপলোড করতে হবে।
৩. এরপর নিজের মোবাইল নাম্বার এবং ইমেইল আইডি (Email ID) যথাস্থানে দিতে হবে।
8. এরপর ওয়েবসাইট আপনার দেওয়া তথ্য গুলি কে verify করবে এবং খরিদ্দার আপনার সাথে যোগাযোগ করবে।