শেষ হতে চলেছে অসাধু রেশন ডিলারদের জারিজুরি, এবার OTP ব্যবহার করতে হবে রেশন তুলতে

Loading...

রেশন কার্ড (Ration card) নেই এমন মানুষ খুব কমই আছে। কিন্তু রেশন কার্ড আছে মানে যে সবাই রেশন দোকান থেকে রেশন সামগ্রী সংগ্রহ করে তা নয়। এমন অনেক মানুষ আছে রেশন কার্ড থাকলেও রেশন ক্রয় করেন না। রেশন (Ration) না নেওয়া ব্যক্তিদেরও কিন্তু রেশন দোকানে ডিলারদের (Dealer)কাছে বরাদ্দ রেশন সামগ্রী নিয়মিত আসে। আর এই সুযোগের লাভ নিয়ে অনেক অসাধু ডিলাররা বরাদ্দ রেশন সামগ্রীর কালোবাজারি করে থাকে এরকম অনেক খবর শোনা গেছে। তবে আর এই কালোবাজারি নয়।

Ration

Loading...

রেশন কার্ডের সাথে আধার (Aadhar) লিঙ্ক হওয়ার ফলে আর অসাধু ব্যবসায়ীরা কারচুপি করতে পারবে না। রেশনের সাথে আধার লিঙ্ক হওয়ার ফলে রাজ্য সরকারের (State Government) রেশন এর ওপর কড়া নজর থাকবে। বর্তমানে রাজ্য সরকারের প্রধান লক্ষ্য হলো রাজ্যের প্রায় 10 কোটি রেশন কার্ড হোল্ডারদের (Ration Card Holder) রেশন কার্ডের সাথে আধার কার্ড যুক্ত করার পদ্ধতি সম্পন্ন করা। রেশন আধার লিঙ্ক প্রক্রিয়া জোরকদমে চলছে রাজ্যে। রেশন নেওয়া অথবা না নেওয়া সকল রাজ্যবাসীকে রেশন কার্ডের সাথে আধার কার্ড লিঙ্ক করা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।

Loading...

Ration

এই প্রক্রিয়াটি দ্রুত সম্পন্ন করার জন্য সরকারের তরফ থেকে পাড়ায় পাড়ায় অনেক ক্যাম্প খোলা হয়েছে যেখানে এই রেশন আধার লিঙ্ক করার কাজ গুলি হচ্ছে।খাদ্য দপ্তর এর বক্তব্য অনুযায়ী, প্রত্যেক রাজ্যবাসীর রেশন কার্ডের সাথে আধার কার্ড লিঙ্ক হয়ে গেলেই তারপর থেকে রেশন দেওয়ার পদ্ধতি সম্পূর্ণ পাল্টে যাবে। এবার থেকে বায়োমেট্রিক (Biometric) অর্থাৎ আঙ্গুলের ছাপ দিয়ে রেশন তুলতে হবে। অর্থাৎ অন্যের রেশন কার্ড নিয়ে গিয়ে আর রেশন তোলা যাবে না, যার রেশন কার্ড তার আঙ্গুলের ছাপ দিয়ে রেশন তুলতে হবে। তবে এই প্রক্রিয়াটি সামান্য জটিল।

অনেক ক্ষেত্রে আঙ্গুলের ছাপ কাজ নাও করতে পারে সে ক্ষেত্রে রেজিস্টার করা মোবাইল নাম্বারে ওটিপি (OTP) দিয়েও রেশন সংগ্রহ করা যাবে। এর ফলে আর অসাধু ডিলাররা রেশন সামগ্রী এর কালোবাজারি করতে পারবে না এবং অনেক ভুয়ো রেশন কার্ড খাদ্য দপ্তর এর তালিকা থেকে বাদ পড়বে।

Loading...

Loading...