আগে নিজের ছেলে মেয়েকে বর্ডারে পাঠান, তারপর জঙ্গী দেশের প্রধানকে বড় ভাই বলুন! সিধুকে খোঁচা গৌতম গম্ভীরের

তার টার্গেট কে? কাকে টার্গেট করে এত ক্ষোভ প্রকাশ করলেন ভারতের প্রাক্তন ওপেনার গৌতম গম্ভীর (Gautam Gambhir)! দীর্ঘদিন ধরেই রাজনীতির আঙিনায় রয়েছেন এই ক্রিকেটার। তার ঠোঁট কাটা স্বভাবের জন্য তিনি বরাবরই সমালোচিত হয়েছেন। কিন্তু তিনি কখনো হাল ছাড়েননি। বিপরীতে, তিনি সরাসরি কথা বলতে দ্বিধা করেননি। আর এবার সরাসরি তিরস্কার করলেন পাঞ্জাব কংগ্রেস নেতা নভজ্যোত সিং সিধুকে।

আসলে সিধু পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে বড়দা বলে উল্লেখ করেছেন। পাকিস্তানের কর্তারপুর গুরুদুয়ারা সাহিবে গিয়ে সিধু বলেন, ইমরান খান আমার বড় ভাইয়ের মতো। তার কাছ থেকে অনেক ভালোবাসা পেয়েছি। ইমরান খান যখনই দুই দেশের সম্পর্ক উন্নয়নে এক ধাপ এগিয়েছেন, ভারত অনেক দূর এগিয়েছে। আমি মিস্টার মোদি এবং ইমরান ভাইকে অনুরোধ করছি দরজা খোলার ব্যবস্থা করার জন্য। এতে দুই দেশের ব্যবসার উন্নতি হবে।

ইমরান খানকে বড় ভাই বলে ডাকেন সিধু। আর সেটা মোটেও সহ্য হল না গৌতির। কোনো আবরণ ছাড়াই সরাসরি সিধুকে আক্রমণ করেন তিনি। সিধুর বড় ভাইয়ের মন্তব্যে দেশের রাজনীতিতে ব্যাপক সমালোচনার ঝড় উঠেছে। বিজেপির মুখপাত্র সম্বিত পাত্র বলেছেন যে সিধু সেই দেশের প্রধানমন্ত্রীদের মধ্যে ভাই খুঁজে পেয়েছেন যারা কিনা জঙ্গি পাঠায়।

কর্তারপুর করিডোরে পৌঁছানোর সাথে সাথেই পাকিস্তানের পক্ষ থেকে সিধুকে মালা দিয়ে স্বাগত জানানো হয়। পাক সেনাপ্রধানকেও জড়িয়ে ধরেন সিধু। এরপর ইমরান খানের প্রশংসায় পঞ্চমুখ হন তিনি। পাকিস্তানি প্রতিনিধি দল সিধুকে বলেছিল যে ইমরান খানের পক্ষ থেকে তাদের স্বাগত জানানো হচ্ছে। এরপর পাক প্রধানমন্ত্রীকে বড়দা বলে সম্বোধন করেন সিধু। যা নিয়ে দেশের রাজনীতিতে এখন লড়াই চলছে।

গৌতম গম্ভীর (Gautam Gambhir) ছাড়াও বিজেপির অনেকেই পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর বড় ভাই হিসেবে সিধুর ডাক মেনে নিতে পারছেন না। সমালোচনা তীব্র মোড় নিয়েছে। এদিকে, পাঞ্জাবের মন্ত্রী পরগট সিং দাবি করেছেন যে সিধু পাকিস্তানে গেলে তিনি বিশ্বাসঘাতক, এদিকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি চলে গেলে দেশপ্রেমিক হয়ে ওঠেন।