জারি নয়া নিয়ম! এবার থেকে শনিবার হাফ ডে নয়, পূর্ণ সময়ের জন্য খোলা থাকবে স্কুল

করোনা মহামারি পরিপেক্ষিতে দীর্ঘদিনের জন্য স্কুল-কলেজের দরজা বন্ধ ছিল। অবশেষে রাজ্যে কয়েকদিন হল খুলেছে স্কুল কলেজ। সপ্তাহের ছয়দিন স্কুল খোলা থাকলেও শনিবার বরাবরই স্কুলের অর্ধদিবস হয়। কিন্তু এবার থেকে মধ্যশিক্ষা পর্ষদের নির্দেশ অনুযায়ী পূর্ণ দিবসের জন্য স্কুল খোলার নির্দেশ জারি করা হলো। সপ্তাহের অন্যান্য দিনের মতো শনিবারও পুরো ক্লাস নিতে হবে শিক্ষকদের ।

 

এই দিন মধ্যশিক্ষা পর্ষদের সভাপতি কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্যায় জানান স্কুলের প্রধান শিক্ষক অন্যান্য শিক্ষক শিক্ষিকাদের যেন এই নিয়ম জানিয়ে দেন । কিন্তু দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর স্কুলগুলি খোলার পর হঠাৎই শিক্ষা পর্ষদের তরফ থেকে কেন এরকম নিয়ম জারি করা হলো!!ইতিমধ্যেই মধ্যশিক্ষা পর্ষদের এইরূপ সিদ্ধান্তে জন্য প্রশ্ন উঠেছে নানা মহলে।

করোনাকালীন পরিস্থিতিতে সঙ্গে নিয়ে প্রায় কুড়ি মাস পর স্কুল খোলা হল। কিন্তু এ মতো পরিস্থিতিতে দীর্ঘদিন স্কুল খোলার পরিপ্রেক্ষিতে যদি শনিবার পূর্ণদিবস এর জন্য স্কুল খোলার সিদ্ধান্ত নেয়া হয় তা কি সঠিক বিচার করা দরকার। কারণ স্কুলগুলি বন্ধ থাকলেও শিক্ষক-শিক্ষিকাদের ঘরে বসেই রীতিমতো কাজ করতে হয়েছে । ক্লাস নিতে হয়েছে অনলাইনে। অনলাইনে ক্লাস নিওয়া ছাড়াও অ্যাক্টিভিটি টাস্ক, মিড-ডে-মিল বিভিন্ন কাজগুলিকে শিক্ষক-শিক্ষিকাদের নিয়মিত করতে হয়েছে।

আবার অনেকেই মন্তব্য করেছেন এমনিতেই দীর্ঘদিন স্কুল বন্ধ থাকার ফলে শিক্ষার্থীরা ঘরে বসে পড়ার অভ্যাস করে ফেলেছে। এমনিতেই স্কুলের চার দেয়ালের মধ্যে সপ্তাহের ছয়দিন মুখে মাক্স পড়ে ক্লাস করা পড়ুয়াদের পক্ষে খুবই অস্বস্তিকর। তার ওপর যদি শনিবার পূর্ণদিবস খোলা হয় তাহলে হয়তো অনেক শিক্ষার্থী অসুবিধা হতে পারে। এছাড়া মধ্যশিক্ষা পর্ষদের তরফ থেকে স্কুলের সিলেবাস সুষ্ঠুভাবে শেষ করবার জন্য ছুটির দিনেও ক্লাস করার চিন্তা-ভাবনা চলছে।

তবে শনিবার পূর্ণ দিবস স্কুল খোলা থাকলে দূরের শিক্ষক-শিক্ষিকাদের যাতায়াতের অসুবিধা হবে। অনেক শিক্ষক শিক্ষিকা রা শনিবার অর্ধদিবস স্কুলের পর বাড়ি ফেরেন। সেক্ষেত্রে তাঁদের অসুবিধা হতে পারে। ইতিমধ্যে উত্তর দিনাজপুরের রাহাতপুর এর হাই মাদ্রাসা সিলেবাস শেষ করবার জন্য ছুটির দিনেও ক্লাস নেওয়া হচ্ছে। তবে বর্তমান পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে শনিবার পূর্ণদিবস স্কুল খোলার প্রস্তাবে অনেকে যেমন সহমত হয়েছেন, তেমনি অনেকেই এর বিপক্ষে যুক্তি খাড়া করছেন।