Skip to content

পাখিদের জন্য তৈরি করেছেন বিলাসবহুল মহল- থাকা খাওয়ার সম্পূর্ণ ব্যাবস্থা, বৃষ্টিতেও নেই চিন্তা

    গুজরাটের নাভি সাঙ্কলি গ্রামে কয়েক হাজার মাটির হাঁড়ি দ্বারা নির্মিত পাখিদের একটি দুর্দান্ত ঘর তৈরি করেছেন পাখি প্রেমী এক ব্যক্তি। হাজার হাজার মাটির হাঁড়ি, শিবলিঙ্গের ধরন বা কাঠামোতে সাজানো হয়েছে। দেখলে হয়তো মনে হবে এটা কোন শিব মন্দির ! কিন্তু এটি একটি পাখিদের থাকার বাংলো। এখানে পাখিদের থাকার জন্য খুব ভালো ব্যবস্থা করা হয়েছে। গ্রীষ্ম হোক বা বৃষ্টি এখানে পাখিদের কোনো সমস্যা হয় না।

    Nest

    কিন্তু কে সেই ব্যক্তি যিনি পাখিদের জন্য এত বড় একটি বাড়ি তৈরি করেছেন? আসুন সেই সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক। আপনি হয়তো ভাববেন পাখিদের জন্য থাকার এই ইউনিক ডিজাইনে তৈরি বাসস্থানটি কোন এক ইঞ্জিনিয়ার ই তৈরি করেছেন। কিন্তু তা নয়। পাখিদের জন্যই বিলাসবহুল বাংলো টি তৈরি করেছেন চতুর্থ শ্রেণী পাস করা এক কৃষক যার নাম ভগবানজি ভাই। ভগবানজির বয়স 75 বছর।

    তিনি একজন পাখি প্রেমী মানুষ। তাই পাখিদের সুযোগ-সুবিধা এর কথা মাথায় রেখেই এই থাকার জায়গাটি তৈরি করেছেন। বর্ষাকালে ও গ্রীষ্মকালে পাখিদের থাকার খুবই সমস্যা হয়। আর এই সমস্যা ভগবানজি ভাইয়ের নিজের সমস্যায় দাঁড়ায়। এবং তখনই তিনি নিজের কঠোর পরিশ্রম ও সম্পূর্ণ নিজের খরচে 140 ফুট লম্বা ও 40 ফুট উচ্চতা বিশিষ্ট এই পাখির ঘর তৈরি করেন।

    Nest

    এই পাখির ঘর টি তে আড়াই হাজারেরও বেশি ছোট বড় হাড়ি ব্যবহার করেছেন তিনি। এই অভিনব সৃষ্টি দেখতে দূর দূরান্ত থেকে মানুষ আসেন। বিভিন্ন প্রজাতির পাখি এই বাড়িতে থাকে। এই সমস্ত পাখি গুলির খাবারেরও ব্যবস্থা করেন ভগবানজী। তিনি জানান পাখিদের এই বাড়িটি তৈরি করতে তার সময় লেগেছে এক বছর।