Skip to content

ভারতে আসছে অত্যাধুনিক ট্রেন কোচ! যাত্রীদের জন্য রয়েছে একাধিক সুযোগ সুবিধা।

    img 20220813 234252

    ইতিমধ্যেই ভারতীয় রেল যাত্রীদের জন্য কী কী সুবিধা প্রদান করেছে, তা আমরা জানি। যাত্রীদের অনেক সুবিধা প্রদান করেছে এই ভারতীয় রেল। আবারও একটি নতুন মাত্রা যোগ হয়েছে এই ভারতীয় রেলে যাত্রীদের সুবিধার জন্য। ভারতীয় রেল আগামী 25 বছরের জন্য তৈরি করেছে একটি ব্লু প্রিন্ট। এই মিশনের নাম দেওয়া হয়েছে মিশন ২০৪৭। স্বাধীনতার ৭৫তম বছরে আগামী ২৫ বছরের জন্য বেশ কিছু লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে ভারতীয় রেল।

    Train

    ভারতীয় রেলওয়ে তাদের আধিকারিক ও কর্মচারীদের অফিসে বিশেষ দেওয়াল ঘড়ি বসাতে চলেছে এই মিশন ২০৪৭ পূরণ করা জন্য। রেলওয়ের এই ঘড়ির নীচে এবং উপরে লেখা থাকবে কোম্পানির নাম, সেখানে ব্যবস্থা থাকবে মিশন ২০৪৭ লেখার। এমন ব্যবস্থা নেওয়ার অন্যতম কারণ হলো যাতে এই মিশন ২০৪৭ সর্বদা সব কর্মীদের মনে থাকে।

    এই মিশনের অংশ হিসাবে ট্রেনের বেশিরভাগ পরিবর্তনের দিকে ভারতীয় রেলের নজর থাকবে। বর্তমানে রেলওয়ের সবচেয়ে বড় কাজ হল, যে সব এলএইচবি কোচ ট্রেনগুলি (Train) চলাচল করে, সেগুলো সরিয়ে দিয়ে শুধু বন্দে ভারত-এর মতো ট্রেন (Train) চালানো হবে সারা দেশে। এর ফলে যাত্রীরা আরও অনেক সুবিধা ভোগ করতে পারবেন।

    বাড়বে ট্রেনের গতি ……

    ট্রেনের গতি বাড়ানো বর্তমানে রেলওয়ের দ্বিতীয় গুরুত্বপূর্ণ মিশন। অর্থাৎ প্রতি ঘন্টায় ট্রেন চলবে ১৬০ কিলোমিটার গতিতে। এটি শুরু হবে দিল্লি-মুম্বাই ও দিল্লি-কলকাতার রুট থেকে। এসব কাজের প্রস্তুতি পুরো দমে চলছে এবং আশা করা যায় আগামী ২৫ বছরের মধ্যেই এর আওতায় চলে আসবে অধিকাংশ রূট।

    See also  শাহরুখ থেকে শুরু করে দীপিকা, জন, 'পাঠান' সিনেমার অভিনেতা অভিনেত্রীদের শিক্ষাগত যোগ্যতা কতদূর? জেনে নিন

    Bande Bharat

    ট্রেন দুর্ঘটনা রোধ করার জন্য ……

    রেলওয়ে মিশনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ পরবর্তী পদক্ষেপ হলো ট্রেনের দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণ করা। তার জন্য ‘কবজ’ নামে একটি পদ্ধতি ব্যবহার করা হবে প্রতিটি ব্যস্ত রুটে। এই পদ্ধতি ট্রেনের মুখোমুখি সংঘাত এড়াতে প্রযুক্তি সহায়ক হবে।

    উন্নয়ন করা হবে ৪০০টি স্টেশনের ……

    রেলওয়ে সারা দেশে পুনর্নির্মাণ করবে ৪০০টি স্টেশন। ইতিমধ্যেই সেই কাজ শুরু হয়ে গেছে। আশা করা যায় আগামী ২৫ বছরের মধ্যে মিশন ২০৪৭-এর অধীনে এই কাজ সম্পূর্ণভাবে শেষ হয়ে যাবে। বর্তমানে দরপত্র চূড়ান্ত করা হয়েছে মোট ১২টি স্টেশনের জন্য।