Skip to content

রেশন কার্ডের পর এবার আধারের সঙ্গে যুক্ত করা হবে জাতি ও আয়ের শংসাপত্র, লাভবান হবেন প্রায় 60 লক্ষ মানুষ

    দৈনন্দিন জীবনে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ নথি (document) গুলির মধ্যে আধার কার্ড (Aadhaar Card) একটি। সরকারের যাবতীয় নথিসহ আধার কার্ড সংযুক্তকরন এখন বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। আপনার রেশন কার্ড হোক অথবা প্যান কার্ড , প্রায় সকল নথিপত্রে আধার কার্ড যুক্ত রয়েছে। এবার আরও দুটি নথিপত্র যোগ হতে চলেছে যেটিতে আধার কার্ড সংযুক্ত করন করা হবে।

    Addhar

    সেই দুটি ডকুমেন্ট হলো একটি ইনকাম সার্টিফিকেট (income certificate) ও অন্যটি কাস্ট সার্টিফিকেট(caste certificate)।একটি সংবাদ মাধ্যম থেকে প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী জানা যাচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার ইতিমধ্যে উক্ত দু’টি নথি অর্থাৎ ডকুমেন্ট এর সাথে আধার সংযুক্ত করন প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গেছে।

    সরকারের বক্তব্য এই দুটি ডকুমেন্টকে যদি আঁধারের সাথে সংযুক্ত করা যায় তাহলে সামাজিক বিভিন্ন সুবিধা ও প্রকল্প পাওয়ার ক্ষেত্রে সঠিক সুবিধাভোগী ব্যক্তিদের খুঁজে নিতে সহজ হবে। ইনকাম সার্টিফিকেট ও কাস্ট সার্টিফিকেটে যদি আধার সংযুক্ত করা হয় সে ক্ষেত্রে সামাজিক ও আর্থিক ভাবে পিছিয়ে পড়া 60 লক্ষ মানুষ বিভিন্ন সুবিধা সহ সরাসরি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে বৃত্তির টাকা পাবে। অর্থাৎ সরকারের বিভিন্ন প্রকল্প এর টাকা সুবিধাভোগীর সরাসরি একাউন্টে জমা হবে।

    Addhar

    সূত্রের খবর, আপাতত এই পাঁচটি রাজ্যে অটোমেটিক ভেরিফিকেশন সার্ভিস এর মাধ্যমে সঠিক মানুষের হাতে বৃত্তির টাকা পৌঁছে যাবে। পাঁচটি রাজ্য হল মহারাষ্ট্র, অন্ধপ্রদেশ, কর্ণাটক, রাজস্থান ও তেলেঙ্গানা। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য এই যে উক্ত পাঁচটি রাজ্যে ইনকাম সার্টিফিকেট এবং কাস্ট সার্টিফিকেট এ আধার লিঙ্ক প্রক্রিয়া সমাপ্ত হয়ে গেছে।

    See also  বলিউডের ৬ জন অভিনেতা যারা অভিনয় জগতে আসার আগে কাজ করতেন ভারতীয় সেনাতে!

    এই প্রক্রিয়া বাস্তবায়িত করতে প্রধানমন্ত্রী শীর্ষ সচিবদের সাথে একটি বৈঠক করেন এবং তারপরেই বাস্তবায়ন করা হয়। এছাড়া সরকারের লক্ষ্য ছাত্র-ছাত্রীদের স্কলারশিপের টাকা ডিজিটাইজেশন প্রক্রিয়ায় করা। মাধ্যমিক এর পরে তপশিলি ছাত্র-ছাত্রীদের স্কলারশিপের বিষয়টিকে ডিজিটাইজেশন করা হবে। এর ফলে স্কলারশিপ বন্টন এর প্রক্রিয়া আরো সহজ হবে।

    Addhar

    স্কলারশিপের বিষয়টি বেশি গুরুত্ব পায় মাধ্যমিক এর পরে। এক্ষেত্রে অনেক পরীক্ষার্থীর ব্যাংক একাউন্ট থাকে কিন্তু তাদের সাথে তার কোনো সম্পর্ক থাকে না। কিন্তু যেহেতু ব্যাংক একাউন্টের সাথে আধার নম্বর লিঙ্ক থাকা বাধ্যতামূলক এবং সেটি যদি থাকে সেক্ষেত্রে স্কলারশিপের টাকা সরাসরি তাদের একাউন্টে আধার এর মাধ্যমে দিয়ে দেওয়া যাবে।

    সরকারের নেওয়া এই পদক্ষেপকে অনেকেই রাজনৈতিক রঙ দিচ্ছেন। কারণ ভোটের আগে নানা প্রকল্প নিয়ে সরকার হাজির হয়। উত্তর প্রদেশ সহ আরো চারটি রাজ্যে ভোট শেষ হল এবং তার ফলাফল বের হয়ে গেছে। শৈশব রাজ্যগুলি তো ভোটের আগেই নানা প্রকল্প এনেছিল বিজেপি সরকার। তাই বিরোধীপক্ষ এটিকেও রাজনৈতিক স্বার্থসিদ্ধি হিসেবে দেখছে।