Skip to content

UAE এর চাকরি ছেড়ে গ্রামে এসে শুরু করেন সুপারি পাতার ব্যাবসা, আজ বছর গেলে আয় কোটি কোটি টাকা

    img 20220817 185711

    বর্তমানে ভারতের যুব সম্প্রদায়ের একাংশ ইঞ্জিনিয়ারিং করে বিদেশে পাড়ি দিচ্ছে এবং সেখানে বিভিন্ন মাল্টিন্যাশনাল কোম্পানিগুলিতে যোগ দেওয়ার চেষ্টা করছে। কিন্তু আজ আমরা আপনাদের এমন এক দম্পতির কথা বলব যারা বিদেশের ভালো টাকার চাকরি ছেড়ে দেশে ফিরে আসে এবং এমন একটি ব্যবসা শুরু করেন যা থেকে বর্তমানে লাখ লাখ টাকা ইনকাম করছেন।তাদের ব্যবসার বিষয়টি হলো সুপারি পাতা দিয়ে টেবিওয়ের প্রোডাক্ট বানানো। কে সেই দম্পতি বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।

    Areca Leaf

    কেরালার মাদুকাই গ্রামের দেবকুমার নারায়ণন এবং তার স্ত্রী সরন্যা দুজনেই দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইঞ্জিনিয়ারিং সম্পন্ন করেছিলেন। তারা ভালো ভবিষ্যতের স্বপ্ন নিয়ে 2014 সালে সংযুক্ত আরব আমিরাত ( UAE ) যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল । সেখানে গিয়ে দেবকুমার একটি বড় টেলিকম কোম্পানিতে চাকরি শুরু করেছিলেন । আর সরন্যা সিভিল ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে একটি ওয়াটারপ্রুফিং কোম্পানিতে যোগ দিয়েছিলেন।

    যদিও তারা আরব আমিরাতে কাজ করছিলেন , কিন্তু তাদের মন সর্বদা দেশ এর দিকে পড়ে ছিল। দেশের প্রতি তাদের টান তাদের পুনরায় দেশে ফিরিয়ে নিয়ে আসে। তারা ভারতে ফিরে এসে তাদের স্টার্টআপ শুরু করার সিদ্ধান্ত নেন। এছাড়াও তাদের স্টার্টআপ শুরু করার আরেকটি উদ্দেশ্য ছিল নিজ এলাকায় কর্মসংস্থান তৈরি করা। বিভিন্ন ভাবনা চিন্তা করে অবশেষে তারা 2018 সালে নিজের গ্রামে ফিরে আসেন। ফিরে এসে এই দম্পতি ‘পপলা’ নামে একটি কোম্পানি শুরু করেন।

    Areca Leaf

    তাদের এই স্টার্টআপ এ তারা পাঁচ লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করেন। এই ব্যবসাতে তারা সুপারি পাতা কে কাজে লাগায়। সুপারি পাতা দিয়ে খাবারের ব্যাগ ,সাবান প্যাকেজিং সহ একাধিক নিত্য নতুন সামগ্রী তৈরি করেন। তাদের তৈরি করা এই পণ্যগুলি কিছুদিনের মধ্যেই ভারত সহ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ,আরব এর দেশ গুলিতে চাহিদা পেতে থাকে। তাদের পণ্য গুলির চাহিদা বাড়ার সাথে সাথে তারা তাদের কোম্পানিতে কর্মসংস্থান দিতে থাকে। প্রথম ক্ষেত্রে তারা গ্রামের সাতজন অভাবি মহিলাদের কাজ দেন। কিছুদিনের মধ্যেই তাদের কোম্পানির টার্নওভার 18 কোটি টাকা ছাড়িয়ে যায়।

    See also  ব্রাজিলে বিশ্বকাপ খেলা ভারতীয় দলের গোলরক্ষক, বাংলার এই ছেলে এখন অটো ড্রাইভার

    কোম্পানির নাম ‘ পপলা’ রাখা প্রসঙ্গে সরণ্যা বলেছেন, সুপারী কে স্থানীয়ভাবে পালা বলা হয়। আর সেই থেকেই নামের কিছুটা পরিবর্তন করে তাদের ব্রান্ডের নাম হয় পপলা। তিনি আরো জানান যে তারা সুপারি পাতা ব্যবহার করে চামচ, প্লেট, সাবানের কভার, বাটি সহ একাধিক সামগ্রী তৈরি করছেন। তবে তারা এটাও জানান যে এতে গাছের কোন ক্ষতি তারা করছেন না। কারণ গাছ থেকে পড়ে যাওয়া পাতা থেকে তারা এই সামগ্রী তৈরি করছেন।

    Areca Leaf

    স্টার্টআপ শুরুর প্রাথমিক দিনগুলিতে এই দম্পতি থার্ড পার্টির মাধ্যমে তাদের পণ্যগুলি বিদেশে প্রেরণ করছিলেন। তবে করোনা কালে তাদের ব্যবসার উপর বেশ প্রভাব ফেলে। কিন্তু তারা জানান যে তারা তখন স্থানীয় বাজারগুলিকে ধরতে শুরু করেন এবং সেই পরিস্থিতিকে তখন তারা নিয়ন্ত্রণে আনেন। তাদের এই পণ্যগুলি আজ ভারতের বড় বড় সুপার মার্কেট গুলিতে উপলব্ধ রয়েছে। সত্যি দেবকুমার ও সরণ্যার সফলতার এই কাহিনী অনুপ্রেরণা জাগায়।