Skip to content

আম্বানিকেও টেক্কা দেন অভিনেতা পরেশ রাওয়াল, করেন বিলাসবহুল জীবনযাপন

    খলনায়ক চরিত্রে হোক কিংবা কমেডি,যে কোন চরিত্র কে এক বিশেষ পর্যায়ে নিয়ে গেছেন এই অভিনেতা। এখনো তিনি অভিনয় করে চলেছেন এবং দর্শকদের মুগ্ধ করেন। তিনি হলেন বর্তমানে 66 বছর বয়সের অভিনেতা পরেশ রাওয়াল (Paresh Rawal)। অভিনয় জীবনে তার যাত্রা খলনায়ক হিসেবে শুরু হলেও ক্রমে তিনি কমেডি চরিত্রে বিশেষ সফলতা পান।

    Paresh rawal family

    পরেশ রাওয়ালের জন্ম 1955 সালে ৩০মে মুম্বাই শহরে। বর্তমানে বয়স 66 বছর। Narsee Monjee College of Commerce and Economics থেকে ইঞ্জিনিয়ারিং পাশ করেন। মারাঠি,গুজরাটি এবং ইংরেজি ভাষায় অত্যন্ত পারদর্শিতার সাথে কথা বলতে পারেন। একসময়ের মিস ইন্ডিয়া খেতাবজয়ী স্বরূপ সমপাতকে বিবাহ করেন। পরেশ রাওয়াল এর অভিনয় জগতে প্রবেশ করেন 1985 সালে “অর্জুন’ নামক একটি সিনেমায় পার্শ্ব চরিত্রের অভিনেতা হিসেবে। তবে 1986 সালে “নাম” সিনেমায় অসাধারণ অভিনয় করে দর্শকদের মন জয় করে নেন।

     

     

    পরেশ রাওয়ালের (Paresh Rawal) উল্লেখযোগ্য কয়েকটি সিনেমা যেগুলিতে তিনি খলনায়কের ভূমিকায় অভিনয় করে দর্শকদের মন জয় করেছেন সেই সিনেমা গুলি হল “রূপ কি রানি চরো কা রাজা”, “কিং আঙ্কেল”, “বাজি”, “দর”। তিনি প্রথম কমেডি চরিত্রে যে সিনেমায় অভিনয় করেন সেটি হল “আন্দাজ আপনা আপনা” সিনেমা। তার সবচেয়ে জনপ্রিয় কমেডি সিনেমা যেটি এখনো পর্যন্ত সুপারহিট সেটি হল “হেরাফেরি”। এছাড়াও তাঁর অভিনীত উল্লেখযোগ্য সিনেমা গুলি হলো “আখে”, “গরম মসলা”, “মালামাল উইকলি”, “ওয়েলকাম”, “দে দানা দান”, “ও মাই গড”।

     

    সুনীল দত্তের চরিত্রে অভিনয় করে সকলকে চমকে দিয়েছেন “সঞ্জু” নামক সিনেমাতে। সম্প্রতি “হাঙ্গামা টু” সিনেমাতে অসাধারণ অভিনয় করেছেন। অভিনয় জীবনে অসাধারণ সফলতার জন্য পেয়েছেন অনেক পুরস্কার। জাতীয় পুরস্কার, ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ড, পদ্মশ্রী পুরস্কার সহ আরো অনেক পুরস্কার রয়েছে তার ঝুলিতে। শুধুমাত্র অভিনয় সীমাবদ্ধ থাকেনি রাজনীতি প্রবেশ করেছেন এই অভিনেতা। বিজেপির হয়ে গুজরাটের আমেদাবাদের সাংসদ হয়েছেন তিনি। অর্থাৎ সবমিলিয়ে জীবনী সফলতার শীর্ষে রয়েছেন পরেশ রাওয়াল।

     

    কিন্তু তিনি অভিনয় জগতে এত সম্মান পেয়েছেন যা বলাই বাহুল্য। তাঁর সম্পত্তির পরিমাণ এত বেশি যে ভারতের ধনী ব্যক্তিদের মধ্যে তিনিও একজন। মুকেশ আম্বানির মতোই তিনিও আরামদায়ক এবং বিলাসবহুল জীবন যাপন করেন। পরেশ রাওয়ালের সম্পত্তির পরিমাণ ২০১৪ সালের হিসাব অনুযায়ী, প্রায় ৮০ কোটি টাকার সম্পদ। তাঁর মধ্যে ৭০ কোটি পরেশ রাওয়ালের নামে। আর বাকি ১০ কোটি তাঁর স্ত্রীর নামে। আর বাকি সম্পত্তি রয়েছে তার দুই ছেলের নামে।

    Paresh Rawal

    গাড়ি আছে, ‘ Tyota Etios Cross’। যার মূল্য ৬.৫৬ লক্ষ টাকা। তাঁর কাছে আরো গাড়ি আছে , ‘ Tyota Innova Crysta’ যার আনুমানিক মূল্য ১৫.৩৬ লক্ষ টাকা। তাঁর কাছে Grand i10 Asta আছে। যার মূল্য ৬.৬৭ লক্ষ টাকা। তিনি প্রতিটা সিনেমার জন্য ২ থেকে ৩ কোটি টাকা নিয়ে থাকেন।