Skip to content

DRDO তৈরি করোনার ওষুধ 2DG! কারা খেতে পাবেন? কারা পাবেন না? জানালো সংস্থা

    করোনা মোকাবেলায় এবার নেমে পড়লো DRDO এর 2DG ঔষধ।হায়দ্রাবাদের ফার্মাসিটিক্যাল ও বায়োটেকনোলজি কোম্পানি ডক্টর রেড্ডি স ল্যাবরেটরি ডিআরডিও (DRDO) এর তত্ত্বাবধানে এই 2-DG ওষুধ তৈরি করছে। সংস্থার দাবি এই ঔষধ করোনা মোকাবিলায় রোগীকে অনেকাংশে সাহায্য করবে। এই 2DG ওষুধের ট্রায়াল’ সাফল্যের সাথে পাশ করেছে। ইতিমধ্যে কেন্দ্র ওষুধের দাম নির্ধারণ করে দিয়েছে। এছাড়াও মঙ্গলবার সংস্থার তরফ থেকে টুইটে একটি বিস্তারিত গাইডলাইনস প্রকাশ করেছে যে কারা এই ঔষধ (2DG) ব্যবহার করতে পারবেন এবং কারা পারবেন না।

    কাদের 2DG ওষুধ দেওয়া যাবে?

    •করোনার চিকিৎসা চলাকালীন এই ওষুধ দেওয়া যেতে পারে। এই ওষুধ করোনা আক্রান্ত রোগীর সুস্থতা এর গতি অনেকাংশে বাড়িয়ে দেয়।

    •যেসব ব্যক্তিদের মৃদু থেকে বেশি উপসর্গ দেখা যাচ্ছে তাদের যাতে অবস্থার অবনতি না হয় সেসব ব্যক্তিদের ওষুধ দেওয়া যাবে।

    •সর্বোচ্চ দশ দিনের জন্য এই ওষুধ প্রেসক্রাইব করা যাবে।

    •আক্রান্ত ব্যক্তির অক্সিজেন লেভেল কমে গেলে এই ওষুধ প্রয়োগ করলে দেহে অক্সিজেনের লেভেল নিয়ন্ত্রণ করবে।

    •তবে চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে এই ওষুধ ব্যবহার করতে হবে।

    DRDO 2DG

    DRDO

    কাদের কে এই ওষুধ দেওয়া যাবে না?

    •যাদের শ্বাসকষ্ট জনিত রোগ (ARDS), এছাড়া হেপাটিক ও কিডনি সমস্যায় ভুগছেন তাদের এই ওষুধ (2DG) দেওয়া যাবে না।

    •গর্ভবতী মহিলা অথবা সদ্য মা হয়েছেন এমন মহিলাদের ওষুধ দেওয়া যাবে না।

    •18 বছরের নিচে করোনা আক্রান্ত দের এই ঔষধ প্রয়োগ করা যাবে না।

    •এছাড়া ডায়াবেটিস এবং হার্টের সমস্যায় ভুগছেন এমন ব্যক্তি দের এই ওষুধ দেওয়া যাবে না।

    এছাড়াও সবশেষে DRDO এর নোটিশে বলা হয়েছে, রোগী এবং তার পরিবার রা এই ওষুধের সুবিধা পেতে হাসপাতালে কর্তৃপক্ষ কে ডক্টর রেড্ডি’স ল্যাব এর সঙ্গে যোগাযোগ করার অনুরোধ করা হয়েছে।