Skip to content

৯৯% জল দ্বারা ঘেরা ভারতের এই প্রতিবেশী দেশটি! সৌন্দর্য এতটাই যে প্রতি বছর লক্ষ লক্ষ মানুষ আসে ঘুরতে

    পৃথিবীতে অনেক সৌন্দর্যে পরিপূর্ণ ঘুরতে যাওয়ার জায়গা রয়েছে। এই সৌন্দর্যপূর্ণ বেড়াতে যাওয়ার জায়গা গুলোর সম্ভারের মধ্যে বেশ কিছু টুরিস্ট প্লেস এত সুন্দর হয় যে প্রতিটি মানুষের একবার অন্তত এই জায়গায় ঘুরতে যাওয়ার ইচ্ছা থাকে।

    Island

    তবে আপনি কি এমন কিছু প্রতিবেশী দেশের কথা জানেন যেখানে ৯৯ ভাগ জল এবং ১ ভাগ স্থল রয়েছে। আরে অত্যন্ত স্বল্প স্থলভাগের মধ্যেই মানুষের বসবাস। এত ছোট জায়গা থাকা সত্ত্বেও প্রত্যেক বছর দেশ বিদেশ থেকে লক্ষাদিক মানুষ এই সব স্থানগুলিতে ভ্রমণ করতে আসে। দেশটির নাম হল মালদ্বীপ (Maldives)। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি হলো একসময় ভারত মালদ্বীপে অভ্যুত্থান আটকানোর জন্য সামরিক পদক্ষেপ গ্রহণ করেছিল।

    Maldives

    মালদ্বীপের কথা উঠলে প্রথমেই যা মাথায় আছে তা হল সুন্দর ওভার ওয়াটার লাক্সারি ভিলা, সাদা বালি দ্বারা ঘেরা চমৎকার সমুদ্র সৈকত ও ওয়াটার স্পোর্টস এক্টিভিটি। আপনারা হয়তো সকলেই জানেন পরিবারসহ কিংবা সদ্য নতুন দম্পতিদের ছুটি কাটানোর জন্য বেস্ট টুরিস্ট প্লেসের (Best tourist place) মধ্যে অন্যতম হলো মালদ্বীপ (Maldive) বেশিরভাগ মানুষ এখানে ভ্রমন করতে যায় স্কুবার্ডরাইভিং করার জন্য। এতো বড় পরিমানে আন্ডারওয়াটার স্পোর্টস এক্টিভিটি থাকা সত্ত্বেও বৈজ্ঞানিকদের মতে এখনো পর্যন্ত এর জলের নীচের পরিস্থিতিকে তন্ত্রের বিষয় হাজারো কিছু শেখা বাকি।

    Sea beach

    বর্তমানে মালদ্বীপ ও ব্রিটেনের সামুদ্রিক অনুসন্ধান সংস্থা নেকটন খুঁজে না পাওয়া এলাকাগুলোর অনুসন্ধানের কাজ শুরু করেছে। এই মিশনকে ‘নেকটন মালদ্বীপ মিশন’ (Nekton Maldive Mission) বলা হয়। এই মিশনটি লঞ্চ করা হবে চলতি মাসে ৪ সেপ্টেম্বর অর্থাৎ ২ দিন পর। এই মিশনে মালদ্বীপ এবং বিজ্ঞানীদের বেশ কিছু টিম যুক্ত থাকবে যারা দুটি হাই-টেক সাবমারসিবল ব্যবহার করে ৩০ মিটারের নিচে ব্যাপক গবেষণা চালানোর পরিকল্পনা করেছে।  যার মধ্যে তারা একটি সার্বিয়াল সমুদ্রে ১০০০ মিটার গভীরতা পর্যন্ত যেতে পারে। এই মালদ্বীপের বৈজ্ঞানিক জলবায়ু  কম করতে সাহায্যে করে সমস্ত সংকটের প্রভাব।

    Beach

    নেকটন রিপোর্টে জানা গেছে, যে এই মালদ্বীপে আয়তন অনুসারে স্থল আছে মাত্র ১ শতাংশ আর বাকি ৯৯ শতাংশ মহাসাগর দ্বারা বিস্তৃত (99% water and 1% land)। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে গড়ে প্রায় ১.৫ মিটার উঁচু এই মালদ্বীপ। যদি কখনো সমুদ্রের উচ্চতা বাড়ে, তখন মালদ্বীপের অবশিষ্ট এলাকাও সমুদ্রে তলিয়ে যাবে। এই পরিস্থিতিতে মালদ্বীপ সরকার জলের নিচের তথ্য সংগ্রহ করে সময়মতো একটি ব্যাপক উদ্ধার পরিকল্পনার প্রচেষ্টা শুরু করেছে। এবার বিজ্ঞানীরা গবেষণায় পাওয়া তথ্যর মাধ্যমে  সংগ্রহ করবে সমস্ত গুরুত্বপূর্ণ তথ্যগুলি।

    Tourism

    ভারত মহাসাগরের অঞ্চলে ভারতের জন্য একটি কৌশলগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ দেশ হলো ৯০ হাজার বর্গকিলোমিটার জুড়ে বিস্তৃত মালদ্বীপ (Maldives)। তবে ভারতের সাথে মালদ্বীপের এত ভালো সম্পর্ক থাকা সত্ত্বেও, এই দ্বীপের উপর চীনের প্রভাব সবচেয়ে বেশি। ভারতের প্রথম কাজ হলো মালদ্বীপকে নিজের কাছে টেনে আনা। তাই মালদ্বীপের জলসীমার সবচেয়ে কাছে মিনিকয় ভারতীয় দ্বীপ যা মাত্র ১০০ কিমি দূরে অবস্থিত, ৪০০ কিমি দূরে লাক্ষাদ্বীপের রাজধানী কাভারত্তি থেকে অবস্থিত, আর কেরালা অঞ্চলের  দক্ষিণ বিন্দু থেকে মালদ্বীপের এই দ্বীপের দূরত্ব মাত্র ৬০০ কিলোমিটার।  এমন পরিস্থিতির সাথে কোন ভাবে যদি মালদ্বীপের উপর চীনের উপস্থিতি বাড়ে, তাহলে তা ভারতের জন্য বড় বিপদের কারণ হয়ে উঠতে পারে।

    Beach tourist spot

    তবে সমস্ত তথ্য সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে আলোচনার পর এটুকুই বলা যায় মালদ্বীপ ছুটি কাটানোর জন্য এবং মানসিক অবসাদগ্রস্ত জীবনযাপন থেকে মুক্তি পাওয়া জন্য বেশ ভালো একটি ভ্রমণ স্থান।