Skip to content

1 কাপ চা বিক্রি করেন 1000 টাকায়, তা সত্ত্বেও দোকানে লেগে থাকে ভীড়

    ভারতে চা (Tea) পান করার চাহিদা এবং তার পরিব্যাপ্তি অনেক বেশি। এক চুমুক চা তেই অনায়াসে সমস্ত ক্লান্তি দূর হয়ে যায়। ভারতে কফির চেয়েও বেশি চা পান করা হয়। শীতের মরসুম হোক কিংবা যেকোনো মরসুম অতিথি আপ্যায়নের জন্য সবার প্রথমে মনে পড়ে চায়ের কথা। চা প্রেমিরা সারাদিনে একবার চা না খেলে তাদের কোন কাজেই মন বসে না। একবার চা পান করেন কেউ আবার একাধিকবার।

    Tea

    ভারতে পশ্চিমবঙ্গ এবং আসামের মতো চা উৎকৃষ্টকারী দুটি জনপ্রিয় রাজ্য বর্তমান, তাই এখানে চা খুবই সহজলভ্য। তাই চায়ের দামও বেশ কম। কোন জায়গায় ৫ টাকা কোন জায়গায় ১০ টাকা থেকে শুরু করে বড় বড় রেস্তোরায় ২৫ থেকে ৩০ টাকা কিংবা রকমারি চা হলে তার দাম ২০০ থেকে ৩০০ টাকা হয়। তবে ভারতের এমন এক জায়গা আছে যেখানে চায়ের নাম ১০০০ টাকা। তবে এইটা এত দামি হওয়া সত্ত্বেও এই চায়ের চাহিদা একটুও কমেনি।

    তবে এই চায়ের বিশেষত্ব কি? এই চাপ প্রেমিক কলকাতা বাসিন্দা চা বিক্রেতার নাম পার্থপ্রতিম গাঙ্গুলী। প্রথমে তিনি একটি বেসরকারি কোম্পানিতে কাজ করতেন এবং পরে তিনি সেই কাজ ছেড়ে নিজের চায়ের স্টল তৈরি করেন। এই ব্যক্তিত্ব সম্পর্কে বেশ ভালো জ্ঞান রয়েছে এবং তিনি অনেক ধরনের চা বানাতে পারেন তাই তিনি অনেক ধরনের চা বানিয়ে মানুষকে খুশি করার জন্য সেই চায়ের কাপ অনুভব করাতে চান।

    Nirjash partha pratim Ganguly

    বর্তমানে তার চা এর খ্যাতি সারা দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। ২০১৪ সালে তিনি নিজের নির্যাস টি নামে এই চায়ের স্টলটি প্রথমবারের জন্য শুরু করেন। তার চা এর মান যেকোন পাঁচ তারকা রেস্তোরার চেয়েও ভালোমানের সুস্বাদু। তিনি চা তৈরির সময় চা পাতা হিসেবে একটি বিশেষ ধরনের চা পাতা ব্যবহার করেন, যার নাম বো-লে। এই ১ কেজি চা পাতার দাম প্রায়  ৩০ লাখ টাকা, তবে সবচেয়ে লক্ষণীয় ব্যাপার এটাই যে হাজার টাকার চা টি এখানে ১০ টাকা দামের পাওয়া যায় যাতে কোন সাধারণ মানুষ নিরাশ না হয়।